ফাইনালের দেখা পেল বার্সা শেষ মুহূর্তের গোলে

0

বার্সেলোনার হয়ে গাদা গাদা শিরোপা জিতেছেন লিওনেল মেসি। কিন্তু পরিস্থিতি বিচারে এ মৌসুমটা মেসির জন্য বিশেষ কিছু। মৌসুম শেষে তিনি বার্সায় থাকবেন কি না, নিশ্চিত নয়। কে জানে, বার্সায় এটাই হয়তো তাঁর শেষ মৌসুম!এই অনিশ্চয়তার উত্তর সময়ের হাতে রইলেও বার্সা সমর্থকেরা কিন্তু মনে মনে প্রমাদ গুনছেন। ক্যাম্প ন্যু-তে এটা মেসির শেষ মৌসুম হলে যাওয়ার আগে তাঁর হাতে অন্তত একটা শিরোপা শোভা পাওয়া উচিত। কাল রাতে তেমন একটা সুযোগই তৈরি করে দিলেন মেসির সতীর্থরা—কোপা ডেল রে সেমিফাইনালের ফিরতি লেগে সেভিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে বার্সা। দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ গোলের জয় ফাইনালে উঠেছে রোনাল্ড কোমানের দল।সেভিয়ার মাঠে প্রথম লেগ ২-০ গোলে হেরেছিল বার্সা। ফিরতি লেগ ঘরের মাঠে হলেও বার্সার জন্য সমীকরণটা কঠিন ছিল। কোনো গোল হজম করা যাবে না, আর অন্তত দুটি গোল করতে পারলে ম্যাচ অতিরিক্ত সময়ে নেওয়া যাবে। উসমান দেম্বেলে ও জেরার্ড পিকে মিলে ঠিক এ কাজটি করার পর অতিরিক্ত সময়ে মার্টিন ব্রাথওয়েটের গোলে জিতেছে বার্সা।ফিরতি লেগ জিততে স্বাগতিকেরা কতটা মরিয়া ছিল তা বোঝা গেছে খেলার শুরু থেকে। স্পেনের ঘরোয়া ফুটবল এবং ইউরোপা লিগে সেভিয়া কঠিন প্রতিপক্ষ হলেও শুরু থেকেই আক্রমণে দলটির রক্ষণভাগকে তটস্থ রেখেছিলেন দেম্বেলে-মেসিরা। ১২ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে দুর্দান্ত এক শটে বার্সার ঘুরে দাঁড়ানোর মিশন শুরু করেন দেম্বেলে। তাঁর বাঁকানো শটটি আশ্রয় নেয় জালে। বিরতির পর ৬৭ মিনিটে জর্ডি আলবার ভলি সেভিয়ার গোলপোস্টে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।আলবার এই ভলির পাঁচ মিনিট পর এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল সেভিয়া। পাল্টা আক্রমণ করেছিল দলটি। তাদের উইঙ্গার লুকাস ওকাম্পোসকে থামাতে বক্সের মধ্যে ফাউল করে বসেন বার্সা ডিফেন্ডার অস্কার মিনগুয়েয়া। কিন্তু ওকাম্পোসের স্পটকিক সহজেই ঠেকিয়ে বার্সাকে এ যাত্রায় বাঁচিয়ে দেন গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টের-স্টেগেন। যোগ করা সময়ে নাটক ভর করে ম্যাচে। ফাউল করায় দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন সেভিয়া মিডফিল্ডার ফার্নান্দো।এরপর বার্সার হয়ে সমতাসূচক গোলটি করেন পিকে। মেসির ফ্রি কিক সেভিয়ার ‘মানবদেয়াল’-এ লেগে কর্ণার হয়। আঁতোয়ান গ্রিজমানের কর্নার থেকে অনেক উঁচুতে লাফিয়ে হেডে গোল করেন বার্সা ডিফেন্ডার। পিকের এই গোল মনে করিয়ে দেবে, ২০১৪ চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে আতলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার সের্হিও রামোসের সমতাসূচক গোলকে। পিকের গোলে খেলা অতিরিক্ত সময়ে গড়ানোর একজন খেলোয়াড় বেশি নিয়ে সেভিয়াকে চেপে ধরে বার্সা। ৯৫ মিনিটে আলবার ক্রস থেকে ঝাঁপিয়ে পড়া হেডে জয়সূচক গোলটি এনে দেন ব্রাথওয়েট।

Share.

About Author

Leave A Reply

hioidind