নতুন করে ১১৮টি চীনা মোবাইল অ্যাপস নিষিদ্ধ ভারতে

0

দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বাড়ায় নতুন করে ১১৮টি চীনা মোবাইল অ্যাপস ভারতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জনপ্রিয় ভিডিও গেম পাবজিসহ চীনা ইন্টারনেট জায়ান্ট টেনসেন্টের অন্যান্য অ্যাপস নিষিদ্ধ করেছে ভারত।দেশটির তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে যে তারা বিভিন্ন উত্স থেকে অভিযোগ পেয়েছে যে এসব অ্যাপ তথ্য চুরি করে তা স্থানান্তর করছে।

দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বাড়ায় আবার চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করল ভারত সরকার। নতুন করে ১১৮টি চীনা মোবাইল অ্যাপস ভারতে নিষিদ্ধ করেছে দেশটির সরকার। গতকাল বুধবার এই সিদ্ধান্ত আসে। বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জনপ্রিয় ভিডিও গেম পাবজিসহ চীনা ইন্টারনেট জায়ান্ট টেনসেন্টের অন্যান্য অ্যাপস নিষিদ্ধ করেছে ভারত। এর আগে টিকটক, উই চ্যাটসহ চীনা ৫৯টি অ্যাপ ভারতে বন্ধ করে দেয় দেশটির সরকার। তার কিছুদিন পর ওই অ্যাপগুলোর সহযোগী আরও ৪৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়।

ভারত সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের কাছে তথ্য আছে যে এই চীনা অ্যাপগুলো ‘ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা, প্রতিরক্ষা, রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা ও আইনশৃঙ্খলা’ বিরোধী কাজ করছে। দেশটির তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে যে তারা বিভিন্ন উত্স থেকে অভিযোগ পেয়েছে যে এসব অ্যাপ তথ্য চুরি করে তা স্থানান্তর করছে , চীনের সঙ্গে লাদাখে সংঘাতে ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পর বেইজিংয়ের ওপর ‘ডিজিটাল স্ট্রাইক’ চালিয়েছিল ভারত সরকার। প্রথমে ৫৯টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়। পরে ওই অ্যাপগুলোর সহযোগী আরও ৪৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়। এখন আরও ১১৮টি অ্যাপ বন্ধের সিদ্ধান্ত এল। এ নিয়ে ভারতে ২২৪টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ হলো। এসব অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে গেমস, অনলাইন পেমেন্ট সার্ভিস, ডেটিং সাইট ও সেলফি এডিট করার সফটওয়্যারও আছে।ভারতে লাখো তরুণ পাবজি মোবাইল অ্যাপটি ব্যবহার করেন। প্রতিষ্ঠানটি বলেছে, ভারত সরকারের এমন পদক্ষেপ সম্পর্কে তারা সচেতন ছিল। তবে এ নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি এখন পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করেনি। বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় গেম পাবজি দক্ষিণ কোরিয়ার একটি প্রতিষ্ঠানের তৈরি হলেও গেমিং অ্যাপটির যে মোবাইল সংস্করণ চালু হয়েছে তা টেনসেন্টের তৈরি।

কেবল ভারত নয়, চীনা অ্যাপ কোম্পানির ওপর খড়্গ চাপিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রও। যুক্তরাষ্ট্র সম্প্রতি চীনা অ্যাপ টিকটকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। একই সঙ্গে মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলোকে টেনসেন্টের উইচ্যাট প্ল্যাটফর্মটি দিয়ে ব্যবসা বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Share.

About Author

Leave A Reply

hioidind